Tagged: বিশ্বকাপ Toggle Comment Threads | Keyboard Shortcuts

  • ক্যাপাচিনো 11:33 pm on July 1, 2014 Permalink | Reply
    Tags: খেলাধুলো, জার্মানি, ফিফা, বিশ্বকাপ   

    বিশ্বকাপে 

    ছোটবেলা থেকে মারাদোনার ফ্যান। আমার দেখা প্রথম ফুটবল বিশ্বকাপ ইতালি ১৯৯০ – জার্মানির কাছে সেই হারের দুঃখ বোধহয় কোনদিনও ভুলব না। আর তার পর থেকে প্রত্যেকবারই আর্জেন্টিনার খেলা দেখতে বসলে কোন না কোন রকম ভাবে স্বপ্নভঙ্গ হবে – এবারেও মেসি বাদে কোম্পানির যা দৌড় দেখলাম, তাতে দলটাকে নিয়ে খুব একটা ভরসা করা যাচ্ছে কি?

    কি হবে এবারের বিশ্বকাপে? সব পছন্দের খেলা দেখে উঠতে পারছি টিভির অভাবে, তবে যেটুকু দেখেছি তাতে অনামী অনেক দেশের খেলাই দারুন লাগছে। যেদিন উরুগুয়ের সাথে কোস্টারিকার প্রথম ম্যাচটা দেখেছিলাম, সেদিনই মনে হচ্ছিল এই দলটা এগোবেই। তাদের কোয়ার্টারফাইনালে যেতে দেখে ভালো লাগছে। যে নেদারল্যান্ডস স্পেনকে ভরাডুবি করাল, মেক্সিকোর সামনে তো তাদের বেশ ফিকেই মনে হচ্ছিল। নেহাত কপালজোর না থাকলে ঐ ম্যাচ – ওভাবে? আর ব্রাজিল – যাই হোক।

    আলজিরিয়াকে জার্মানির কাছে হারতে দেখে কষ্টই হল – রবিবার খেলার কমেন্ট্রিতে শুনলাম ১৯৮২ সালে যখন আলজিরিয়া প্রথম খেলতে আসে বিশ্বকাপে, তখন তারা জার্মানিকে হারিয়ে দেয় প্রথম ম্যাচে। জার্মানি খেলার আগে প্রচন্ড আত্মতুষ্টিতে ভুগছিল। নাকি এমন কথাও বলেছিল যে হারলে পরে তাদের কোচ পরের দিন সকালের ট্রেনে ফিরে যাবে (বিশ্বকাপ সেবার বসে ছিল স্পেনে) – তা তিনি জাননি বটে, কিন্তু গ্রুপ লিগের শেষ খেলা জার্মানি গড়াপেটা ম্যাচ খেলে অস্ট্রিয়ার সাথে – যাতে তারা দুজনেই সেকেন্ড রাউন্ডে যায়, আর আলজিরিয়াকে ফিরতে হয়। বিশ্বকাপের একটা কালো অধ্যায় বললেও কম। এই ঘটনার পর থেকে প্রথম রাউন্ডের শেষ ম্যাচগুলি আরম্ভ হয় এক সময়ে। আপনারা কেউ চাইলে সেই ইতিহাস পড়ে দেখতে পারেন এখানে

    বত্রিশ বছর পর দুই দেশ খেলতে নামল। আর একটু হলে ইতিহাস বদলেই যাচ্ছিল। কিন্তু আমার কাছে এবারের বিশ্বকাপে মেক্সিকো, চিলি, আলজিরিয়া বা কোস্টারিকা – সবাই একটা আলাদা জায়গা করে নিল।

     
    • ভাঁড়ের চা 1:22 pm on July 2, 2014 Permalink | Reply

      আমি সব বিষয়ে একেবারে সহমত। শুধু একটা কথা বলব মারাদোনা সম্পর্কে। ১৯৯০ তে ফাইনাল দেখে আমারও খুব খারাপ লেগেছিল, ফাইনাল খেলার নিষ্পত্তি পেনাল্টিতে, এই ব্যাপারটা মানা যায় নি। ঐ বছর মারাদোনা তার আসল ফর্মে ছিলেন না। সেটা দেখতে হলে কয়েকটা ভিডিও, বিশেষ করে ইংল্যান্ড ম্যাচ আর ফাইনাল দেখতে হবে। এই দুটো দেখলে মারাদোনার ফর্ম কি ছিল সেটা বোঝা যাবে! ইংল্যান্ডের সাথে একটা গোল ছিল ‘হ্যান্ড অফ গড’ আর পরেরটা ছিল ‘গোল অফ দি সেঞ্চুরি’। এখনকার খেলোয়াড়েরা তেমন গোল ভাবতেই পারবেন না।
      ১৯৭৮, ১৯৮২, ১৯৮৬ তে যে উত্তেজক এবং স্কিলের খেলা হয়েছিল , মেসি-নেইমারদের কথা মনে রেখেও বলা যায় তেমনটি আর হয়ও নি আর হবে বলেও মনে হয় না! বড় এবং নামী খেলোয়াড়ের বদলে, দেশীয় অনামি এবং ফ্রেশ খেলোয়াড়েরা বোধ করি ভাল খেলবেন । ছোট দলের খেলায় সেটাই প্রমানিত হল এবার।
      নামী আর প্রিয় দলের খেলা এত খারাপ লেগেছিল গতকাল(১/৭/১৪) যে অতিরিক্ত সময়ের খেলা দেখার উৎসাহ হয় নি, ঘুমটা বরবাদ করতে চাই নি। রেজাল্ট সকালে টিভিতে জেনেছি।
      দুবছর আগে কনফেডারেশন কাপে স্পেন ব্রাজিলের কাছে যে ভাবে নাস্তানাবুদ হয়েছিল, তখনই কিন্তু এবারের ফলাফল সম্পর্কে আন্দাজ করা যাচ্ছিল। কোচ কেন বুঝলেন না বলতে পারব না!

      • ক্যাফে ক্যাপচিনো 8:18 am on July 3, 2014 Permalink | Reply

        এক্কেবারে ঠিক কথা – ৯০ তে মারাদোনা মোটেও সেরকম ফর্মে ছিলেন না। আর সেই চোখ জুড়নো ফুটবল বুঝি আর দেখতেও পাওয়া যাবে না। এবারের বিশ্বকাপে দু একটা শট, কিছু দারুন গোলকিপিং আর মেসির ঐ ফ্রিকিক ছাড়া সেরকম কিছু চোখে পড়ল না।

  • ক্যাপাচিনো 9:51 pm on June 6, 2014 Permalink | Reply
    Tags: বিশ্বকাপ   

    আবার বিশ্বকাপ এসে গেল। সেই ছোটবেলা থেকে যতবার দেখছি (১৯৯০ এ ইতালির বিশ্বকাপ থেকে) আর্জেন্টিনা একবারও চ্যাম্পিয়ান হতে পারল না। যাই হোক, খেলার শৈলী ও কৌশল যতই বদলাক না কেন, বাঙালির কাছে ফুটবল ফুটবলই থাকবে – তা সে দেশের ফুটবলে কোন উন্নতি হোক বা না হোক। এদিকে ব্রাজিল তৈরি হচ্ছে তো ভালোই। যদিও এবারে কার দল কেমন জানি না – তবে প্রাক বিশ্বকাপ আমেজে যে একটা দারুন ভিডিও দেখে মন ভালো হয়ে গেল, আর তাই সেটা কফিহাউজের আড্ডায় শেয়ার না করে পারলাম না। উত্তেজনা ছড়িয়ে দেওয়ার পক্ষে এটুকুই যথেষ্ট।

     
    • ভাঁড়ের চা 1:32 pm on June 7, 2014 Permalink | Reply

      ১৯৭৮ আর ১৯৮৬তে আর্জেন্টিনা চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। ১৯৭৮ এর ফাইনাল খেলার ভিডিও দেখেছিলাম পরে, কিন্তু ১৯৮৬তে ‘লাইভ’ দেখেছিলাম। গোটা টুর্নামেন্টে মারাদোনা যা খেলেছিলেন তার তুলনা মেলা ভার। পেলের খেলা দেখা হয় নি,তাই আমার বিচারে সেরা কে সেটা বলা যাবে না। তবে মারাদোনা যে কি জিনিষ সেটা ইংল্যান্ড ম্যাচে দেখা গিয়েছিল। এই ম্যাচের দু’টো গোলের ঝলকের একটা ভিডিও’ ইউ টিউব’এ দেখা যেতে পারে। এতে ‘হ্যান্ডস্‌ অফ গড’ মার্কা গোলটাও রয়েছে।

    • এসপ্রেসো 10:18 am on June 13, 2014 Permalink | Reply

      :sorry ব্রাজিলের খেলা ভালো লাগেনি…

      • ভাঁড়ের চা 1:24 pm on June 15, 2014 Permalink | Reply

        রাত জেগে খেলা দেখা যাবে না, মানে পারব না। তাই ৯-৩০ এ যা হয় তাই দেখতে হবে। এর মাঝে ব্রেজিল নেই বোধ হয়! তবে যখন ‘নক আউট’ (পরের রাউন্ড) শুরু হবে তখন এক আধবার কি আর না দেখব ?

c
Compose new post
j
Next post/Next comment
k
Previous post/Previous comment
r
Reply
e
Edit
o
Show/Hide comments
t
Go to top
l
Go to login
h
Show/Hide help
shift + esc
Cancel