Updates from February, 2013 Toggle Comment Threads | Keyboard Shortcuts

  • ক্যাপাচিনো 6:20 am on February 26, 2013 Permalink | Reply
    Tags:   

    এক কালে রেলের ভাড়া বাড়ানো নিয়ে কত কান্ড হল। কত হাস্যকর পরিস্থিতি হল। তবে মনে হচ্ছে এবার টিকিটের দাম বাড়বেই। বাড়া উচিতও – বরং তাতে যদি রেল ব্যবস্থার কোন উন্নতি হয়। কিন্তু আমাদের দেশের রাজনৈতিক আকাশ এমনি মেঘাচ্ছন্ন – আর মিডিয়াও এতটাই প্রাভাবিত যে ঠিক কি অবস্থায় আমরা রয়েছি বা কি হওয়া উচিত তা যেন কোনদিনই ঠিক করে বুঝে উঠতে পারি না। কি করে দেশটা এগোবে কে জানে?

     
    • ক্যাফে লাতে 9:09 am on February 26, 2013 Permalink | Reply

      কি করে এগোবে? কেন? রেলে চড়ে 😀

    • ক্যাপাচিনো 6:55 pm on February 26, 2013 Permalink | Reply

      হ্যাঁ, রেলে চড়েই বটে। দেখলাম ডবল ডেকার চেয়ার কার (আগে ফ্রান্সে দেখেছি) – মুম্বাইতে এসি ট্রেন চালু হবে। আমি বুড়ো হওয়ার আগে কলকাতার মেট্রো চালু হবে কিনা কে জানে!

  • কফি বিনস 7:19 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply
    Tags:   

    এবারের অস্কার বেশ মনের মতন হল … “জ্যাঙ্গো আনচেন্ড্‌”-এর জন্যে ক্রিস্টোফার ওয়াল্জ সেরা সহ অভিনেতা-র পুরস্কার পেল বলে সব থেকে খুশী হলাম। আরও খুশী হয়েছি Life of Pi ৪টে পুরস্কার পাওয়াতে, এবং যথাযথ category-তে … এটা তো আমার কথা, বাকি কফি-রা কি বলছে ?

     
    • চাফি 7:23 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply

      ‘জ্যাঙ্গো আনচেনড’ সিনেমাটা আমাদের দেশের লোকজনের দেখা উচিত। আমার তো মনে হয় মাঝে মাঝে ভারতবর্ষে একটা সিভিল ওয়ার হলে ভালো হত – সব ভেদাভেদ ভুলে জাতটা একসাথে থাকতে শিখত।

      • ক্যাফে লাতে 3:28 am on February 26, 2013 Permalink | Reply

        কেন, ভারতীয়রা তো দিব্যি এক সাথে আছে- এক সাথে ক্রিকেট দেখছে, হিন্দি সিনেমা দেখছে, ম্যাকডোনাল্ড খাচ্ছে, আবার যুদ্ধ চাই কেন?

      • ক্যাফে লাতে 4:38 am on February 26, 2013 Permalink | Reply

        জ্যাঙ্গো আনচেঞ্জড এর গল্পটা ছোট করে একটু শুনতে চাই কফি বিন্‌স্‌। সময় করে বল।

  • ক্যাফে লাতে 5:58 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply
    Tags: ,   

    ইউনিভার্সিটি হস্টেলে মাসে টাকা নেওয়া হত ১৫০/- কমে মনে হয়।একবার বাজার দর বেড়ে যাওয়াতে দশ টাকা করে বাড়ানো নিয়ে রাম-রাবণের (নাকি সীতা-সূর্পনখা) যুদ্ধ হয়ে গেছিল। দশটাকা করে বাড়ালে সবাই রোজ রাতে একটা করে ডিম খেতে পারত। কিন্তু অনেক মেয়েই রাজি হল না। তখন থেকে ঠিক হল, যাদের রাতে ডিম খেতে ইচ্ছা করবে, তারা ডিম কিনে এনে দেবে। সবার ডিম এক সাথে সেদ্ধ করে দেওয়া হবে। কিন্তু তারপরে সমস্যা হল- কোন ডিমটা কার? 😀 তখন সবাই ডিমের গায়ে ডটপেন দিয়ে রুম নাম্বার লিখে দিতে শুরু করল 😀

     
    • ক্যাপাচিনো 6:46 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply

      হা হা, দারুন ব্যাপার – তোমাদের তো তাও রোজ একটা করে ডিমের ব্যবস্থা। আমাদের ছিল কুল্লে একবার – একটা মিল। তাও আবার ডিমের ভুর্জি। কিন্তু তখন তাও অমৃতের মত লাগত।

      আবার প্রথমবার যখন হোস্টেলে যাই, তখন মনে আছে সেদিন রাত্তিরে ছিল ডিম। ডিমটা খোসাসুদ্ধ হাতে দিয়ে দেওয়া হল আর সঙ্গে দু ডাবা ঝোল। ডিম আর ঝোল যে আন্তরিকভাবে দুটো আলাদা জিনিস, এটা সেদিন বুঝেছিলাম।

    • চাফি 7:28 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply

      আমি না হেসে থাকতে পারছি না। ডিমের ওপর রুম নাম্বার? একটা ঘরে একজনের বেশি লোক থাকত না? হো হো, ডিমের ওপর কি করে লেখা ফুটত এটা ভাবতেই হাসি পাচ্ছে। তবে কোথাও কোথাও অবশ্য ছাপ্পা মারা ডিম আমিও দেখেছি।

      • ক্যাফে লাতে 3:29 am on February 26, 2013 Permalink | Reply

        লেখা ফোটে রে! আমাদের রুমের মেয়েরা একটু শিল্পচেতনা সমৃদ্ধ ছিল। আমরা আবার ডিমের গায়ে ছবি এঁকে দিতামঃ)

        • ক্যাপাচিনো 6:22 am on February 26, 2013 Permalink | Reply

          হে হে, দিব্য একখান ছড়া হয় এই নিয়ে

          • ক্যাফে লাতে 11:23 pm on February 27, 2013 Permalink | Reply

            ছড়া শোনার অপেক্ষায় রইলাম, যদিও এই ব্লগে কাব্যচর্চা বাদ, কিন্তু দু-চার কলি ছড়া কাটলে কি অ্যাডমিন বেজায় ক্ষেপে যাবেন? সেদিন একটা গোটা পোস্ট আবার ডিলিট করে দিয়েছেন। হেভি কড়া কফি !! :cool

    • চা পাতা 4:27 am on June 9, 2013 Permalink | Reply

      হেঃ হেঃ হেঃ! ডিম আগে না “রুম” আগে?

  • ক্যাফে লাতে 5:51 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply
    Tags: খাওয়া দাওয়া   

    রাতের খাওয়া খেলুম- ডাল সেদ্ধ, সেঁকা পাঁপড় আর মোচার ঘন্ট। আহা…অমৃতঃ)

     
    • চাফি 6:21 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply

      বিউলির ডাল, পোস্ত আর আলুকপি ভাজা – আহা কম অমৃত নয়।

      • ক্যাফে লাতে 6:32 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply

        এহেহেহে…জিভে জল এসে গেল রেঃ(

  • চাফি 4:15 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply
    Tags: চাফি   

    ‘গোরিমান’ কি জানেন তো? কতকটা গোরিলা কতকটা হনুমান।
    তেমনি ল্যামড়ো – আরও কত কি?
    চাফিও কতকটা ঐরকম – একপিস চায়ের দোকান দেখেছিলুম, সে কিনা চাফি বলেই বেচে। চা ফুটিয়ে দেওয়ার আগে একফোঁট্টা কফি দিয়ে দেয় – পাঁচ টাকা কাপ। গুমটির মধ্যে দোকান হলে কি হবে? হেব্বি সেল।
    তাই বলছিলুম কি – মানে এই কমিউনিটির জনতাকে বলছিলুম যে বিলিতি মালের নাম নাম কেন, দেশি নয় কেন? আমি কিন্তু ভাই চাফিই থাকলাম।

     
    • ক্যাপাচিনো 4:20 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply

      মনোজদের অদ্ভুত বাড়ি 😛

    • ক্যাফে লাতে 6:02 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply

      এই যে চাফি, কফি আবার বিলিতি হল কবে থেকে ভাই? সারা দক্ষিণ ভারত জুড়ে কফির চাষ, সেখানে লোকে শয়নে স্বপনে জাগরণে কফি খায়, এমন কি আজকাল যত বাংলা সিরিয়াল হয় আর আঁতেল বাংলা ফিল্ম হয় সেখানেও সবাই কফিই খায়…তাহলে আমরা কি দোষ কল্লুম? এই বাংলায় কফিহাউজ কি আজকের? সেই-ই-ই কবে মান্না দে গান গেয়ে গেছেন…কফিহাউজের সেই আড্ডাটা আজ আর নেই…

      • চাফি 6:16 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply

        বটে বটে। দক্ষিনে ফিল্টার কফি এক কালে আমিও খেয়েছি। বাড়িতে বাড়িতে কফির ফিল্টার থাকে জানি। তবে লাতে জিনিসটা কোন দেশে আবিষ্কার শুনি?

        • ক্যাফে লাতে 6:25 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply

          লাতে ভাই পুরো বিদেশী- ইতালিয়ানঃ)

  • ক্যাপাচিনো 1:10 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply
    Tags: কার্টুন,   

    আজকাল বিটস্ট্রিপস বলে কি একটা কার্টুন বানানোর ওয়েবসাইট হয়েছে- যাদের আবার ফেসবুক অ্যাপও আছে, সব্বাই দেখি পটাপট কার্টুন বানাচ্ছে আর দেওয়ালে পোস্টাচ্ছে। হুজুগ আর কাকে বলে। অবশ্য গোটা ফেসবুক জিনিসটাই তো হুজুগের।

     
    • ক্যাফে লাতে 2:19 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply

      তুমিও বানাও ক্যাপাচিনো, তোমাকে কেউ বারণ করেছে নাকি হে? নিজেকে নিজে কার্টুন বানাতে পারা কিন্তু সহজ কম্ম নয়, এলেম থাকা চাই।
      যাকগে, ফেসবুককে হুজুগ বলিস না, মার্ক জাকারবার্গ শুদ্ধ আরো অনেকের মনে বেশ দাগা লাগবে!

      • ক্যাফে লাতে 2:24 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply

        মনে বড় দুঃখ রে ভাই।

  • ক্যাফে লাতে 4:34 am on February 25, 2013 Permalink | Reply  

    ব্যাটা কফি বিনস্‌ এর কম্পু কবে ঠিক হবে রে?

     
    • ক্যাপাচিনো 4:37 am on February 25, 2013 Permalink | Reply

      মনে তো হচ্ছে সেটা পঞ্চত্ব প্রাপ্তি হয়েছে। আর এক খানা কিনতে হবে।

      • ক্যাফে লাতে 2:24 pm on February 25, 2013 Permalink | Reply

        আর কম্পু কিনে কাজ নাই, এবার এক্কেরে আই প্যাড কিনুক একখান!!

  • ক্যাপাচিনো 9:56 pm on February 24, 2013 Permalink | Reply
    Tags: অস্কার, অস্কার নমিনেশন ২০১৩   

    আর একটু বাদে শুরু হতে চলেছে অস্কার। দেখলাম এবার স্পিলবার্গও দৌড়ে আছেন। একমাত্র একটা সিনেমাই দেখা – জ্যাঙ্গো আনচেনড। নমিনেশন দেখে নেওয়া যাবে এইখানে http://oscarnominations2013.com/

     
    • ক্যাফে লাতে 4:33 am on February 25, 2013 Permalink | Reply

      রাত সাড়ে তিনটে তে যেগে অস্কার?? বৌ বাড়ি নেই বলে কি রাতে ঘুম ও নেই? নাকি আজ সকালে অফিস নেই?

      • ক্যাপাচিনো 4:37 am on February 25, 2013 Permalink | Reply

        কালকে কিনা সারা সন্ধ্যে ঘুমিয়েছি। তাই রাত জাগাজাগি।

  • ক্যাপাচিনো 8:06 pm on February 24, 2013 Permalink | Reply
    Tags: কাই পো চে রিভিউ, কায়-প-চে রিভিউ   

    কায়-পো-চে 

    ছোট্ট করে রিভিউ দিচ্ছি। কফি বিনস না বললে হয়তো সিনেমটা দেখতেই যেতাম না। আর তাহলে একটা বড় মিস হত। চেতন ভগতের গল্প ‘থ্রি মিসটেকস অফ মাই লাইফ’ নিয়ে সিনেমা। চেতন ভগতের খুব বড় ভক্ত আমি নই। এমনকি গল্পটাও পড়া ছিল না। কাজেই সিনেমাটা দেখেছি কেবল সিনেমা হিসেবে আর দেখতে দেখতে প্রতি মুহুর্তে পরিচালককে স্যালুট করেছি। সেই অনুভূতিটুকু তুলে ধরার ভাষা নেই। যে দেশে বড় বড় ব্যানারের এমন ছবি হয় যা দেখলে মনে হয় স্বাভাবিক বুদ্ধিবৃত্তির গালে সপাটে একটা চড় মারা হল, সেখানে এরকম একটা ফিল্ম মেকিং অভাবনীয়। বেশি কথায় না গিয়ে চট করে বলছি কি ভালো লাগল –

    প্রতিটি চরিত্র এবং পারিপার্শ্বিক যেন বাস্তবের চেনা চরিত্রদের মধ্যে থেকে উঠে এসেছে। এটা নতুন ধরনের বেশ কিছু সিনেমায় দেখছি। সিনেমার পর্দায় এক একজন অভিনেতাকে দেখে মনে হচ্ছে, আরে একে তো আমি দেখেছি। এ তো কতদিনের চেনা। তিন বন্ধুর গল্প নিয়ে সিনেমা আর সেই সঙ্গে তাদের পরিবার, স্বপ্ন, প্রেম, উন্মাদনা – সবকিছু।

    টাইমিং – এই ব্যাপারটার তারিফ না করে পারছি না। তিন বন্ধুর নিজের নিজের গল্প আবার সেই সঙ্গে সিনেমার গতি খুব সুন্দর ভাবে খাপ খেয়েছে – অর্থাৎ যখন একজনের জীবনের কোন ঘটনা কাহিনীর মোড় ঘুরিয়ে দিচ্ছে, তখন মনে হচ্ছে ঘটনার পরম্পরা ঠিক এই ভাবে না সাজালে সিনেমাটাই এত ভালো হতে পারতো না।

    ফটোগ্রাফি – এক একটি ফ্রেম অসাধারন। ক্রিকেট খেলার দৃশ্যই হোক, কি প্রেমের খুনসুটি হোক, কি তিন বন্ধুর উদ্দাম মুহূর্তই হোক – যেভাবে দৃশ্যায়ন করা হয়েছে তাতে মনে হয়েছে স্যালুট। অসাধারন। গানের দৃশ্যেই বলি, কি ভূমিকম্প বা সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার কথাই বলি – ফটোগ্রাফি নজর কাড়ার মতই।

    সবচেয়ে শেষে যে কথাটা বলব – তা হল চরিত্রায়ন। প্রতিটি চরিত্র নিজের জায়গায় সঠিক – তাদের মান অভিমান, তাদের কথাবার্তা। আবার সেই সঙ্গে এটাও লক্ষ্য করার মত যে কিভাবে তারা বদলাতে থাকে একটু একটু করে। তাদের ছোটখাটো বদল চোখে না পড়লেও একটা সময় যখন বড় মাপের কনট্রাস্ট তৈরি হয় – তখন মনে হয় পরিচালক এই জায়গায় একশো ভাগ সফল।

     
    • ক্যাফে লাতে 4:32 am on February 25, 2013 Permalink | Reply

      দেখা হয়ে গেল? আমি যে কবে দেখবঃ(
      আমাকে তো তাহলে দেখতে যেতেই হচ্ছে -কবে যা যাবঃ(

      • ক্যাপাচিনো 4:38 am on February 25, 2013 Permalink | Reply

        হুঁ হুঁ, এইটে দেখতেই হচ্ছে।

  • ক্যাফে লাতে 7:28 am on February 24, 2013 Permalink | Reply
    Tags:   

    আজ কি রাঁধলি রে ক্যাপাচিনো?

     
    • ক্যাপাচিনো 12:52 pm on February 24, 2013 Permalink | Reply

      হে হে আজ আর রাঁধিনি, কালকে একবার রেঁধেছিলুম। তাই দিয়েই আজকের দিনটা কাবার হয়ে যাবে।

c
Compose new post
j
Next post/Next comment
k
Previous post/Previous comment
r
Reply
e
Edit
o
Show/Hide comments
t
Go to top
l
Go to login
h
Show/Hide help
shift + esc
Cancel