ঋতুপর্ণ ঘোষের অকালে চলে যাওয়ায় আমি মর্মাহত,আজ ভীষণ কষ্ট হচ্ছে ।

আরও বেশি করে মনে পড়ছে আমার প্রথম দেখা সেই দিনের ঋতুপর্ণ ঘোষকে। তবে আমার দেখা ঋতুপর্ণ ঘোষ আর এখন কার ঋতুপর্ণ ঘোষের চেহারার অনেক তফাৎ । এই তফাৎ মন থেকে মেনে নিতে আমার কষ্ট হয়েছে। তবে তাঁর কাজের প্রতি শ্রদ্ধা ছিল আমার আগাগোড়াই সে নিয়ে আমার মনে কোন দ্বিমত নেই।

অনেক দিনের কথা তাই সাল তারিখ মনে নেই, কলকাতায় মামা বাড়ি বেড়াতে গিয়ে সদ্য কেনা ভিভিটার ক্যামেরা হাতে প্রিন্সেপ ঘাটে হাঁটছি ছবির খোঁজে। হঠাৎ দেখি সামনেই শুটিং চলছে, এগিয়ে গেলাম ছবিও তুললাম বেশ কয়েকটা। কিছুক্ষণ বাদেই চেয়ারে বসা সুন্দর দেখতে একটা লোক প্যাকাপ বলে উঠে পড়লেন। প্যাকাপ কথাটার মানে তখনও বুঝতাম বলে লোকটার উপর ভীষণ রাগ হলো। রাগ পড়ল তখন যখন পাশের লোকের মুখে শুনলাম উনিই পরিচালক ঋতুপর্ণ ঘোষ। উনি চলে যাচ্ছে দেখে মনে সাহস নিয়ে এগিয়ে গিয়ে বললাম একটা ছবি নিতে পারি? হে হে বেশতো বলে উনি একটা ট্যাক্সির কাছে এসে দাঁড়ালেন। আমিও আর একমুহুর্ত দেরি করিনি,এই ছবিটা তুলে ফেললাম।

শ্রদ্ধার সাথে আমার প্রণাম রইল, তুমি ভালো থেকো।

Rituparna - 3