—— লঘুক্রিয়া(২)।

ধোনি- বাহিনীর ‘ফুসফাস’ ব্যাপারটা আবার প্রমানিত হল। আগে একদিনের খেলা ছিল, পাঁচ ম্যাচের চারটেতেই গাড্ডু, আর এবার দু’ম্যাচের টেষ্ট-এ ১-০, সেই নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধেই। এই দল কিন্তু মোটেই কিছু আহামরি দল নয়, বিশ্ব র‌্যাংকিং-এ শেষের দিকের দল। আর আমাদের দল থাকে প্রথম দিকেই। সেই জয়ী দলের ক্যাপ্টেন তিনশ’ রান করে ফেলল। এমনই বলের ধার! বোলাররা আমাদের ক্যাপ্টেনেরই রিক্রুট !
দাদা কিন্তু পাকিস্তানে আর অষ্ট্রেলিয়ায় রীতিমত দাদাগিরি করে এসেছিল। আর ইংল্যান্ডে ? সেখানকার কথা ওরা বা আমরা কেউই ভুলতে পারব কি কোন দিন ? ক্রিকেটবিশ্ব সেই একবারই লর্ডসের ব্যালকনিতে জামা উড়তে দেখেছিল! অকল্পনীয় ঘটনা! আমার ২৬ ইঞ্চি ছাতি এক সেকেন্ডে ৪২ হয়ে গিয়েছিল! আমাদের যা হাল তাতে আর কখনও সে জিনিষ হবে? আর হবে না! হ্যাঁ, হলফ করেই বলা যায়!
‘দাদা’, দাদাই!