ভাগ মিলখা ভাগ

অবশেষে দেখলাম সিনেমাটি। কিছু কিছু অংশ দীর্ঘায়ত না হলে এক কথায় বলে দেওয়া যেত দুর্দান্ত। একটা গান দিয়ে লেখা শুরু করছি।

অবশ্যই আপনারা জানেন এবং নতুন করে বলার নেই যে মিলখা সিং-এর আত্মজীবনীর ওপর তৈরি হয়েছে এই সিনেমাটি। যেটা বলার আছে তা হল অভিনেতা হিসেবে ফারহান আখতার অনবদ্য – অদম্য লড়াই, মানসিক টানাপোড়েন আর নিজেকে বারবার ভেঙে নতুন করে গড়ে তোলার চ্যালঞ্জ প্রমান করতে তিনি নিজেকে উজাড় করে দিয়েছেন বললে কম বলা হয় – অনেকটা রেস ট্র্যাকের শেষে ক্লান্ত অবসন্ন মিলখার মতই। অন্যান্য ভূমিকায় মিলখার দিদি (দিভ্যা দত্তা), ট্রেনার (প্রকাশ রাজ) এবং কোচকে (ওনার নামটা জানা নেই) – দারুন লাগে। ঘটনার প্রায় সবটুকুই ছোট ছোট ফ্ল্যাশব্যাকে। দেশভাগের তিক্ত স্মৃতি ও রিফিউজি ক্যাম্প, মিলিটারি ট্রেনিং অ্যাকাডেমি থেকে খেলোয়াড় মিলখার উত্থান আর সবশেষে ট্রেনিং-এর পর্বগুলি অসাধারন। পরিচালক হিসেবে রাকেশ ওমপ্রকাশ মেহরাকে শুধু ‘রং দে বসন্তি’ নয়, এই সিনেমার জন্যও মনে রাখা উচিত। ভাবতে ভালো লাগে যে চেন্নাই এক্সপ্রেসের পাশাপাশি এই ধরনের সিনেমাও এখন হচ্ছে।