রাঁঞ্ঝনা – রিভিউ

কে যেন বলেছিল কফিহাউজের আড্ডায় যে রান-ঝা-না-আ দেখবে? (উচ্চারনটা ভুল – আমার মনে হয় ওটা হবে রাঁঞ্ঝনা) – তা সে মনে হয় দেখেনি। তাই ভাবলাম, আমি যখন দেখলাম, কিছু তো বলাই উচিত।

যাইহোক, মোদ্দা কথা হচ্ছে – আরেকটি প্রেমের গল্প, এবং তাতে বড়ই ভজঘট্ট। দুজোড়া প্রেমিক প্রেমিকা আছে – যদিও শেষমেষ কেউই তার অভিপ্রেত সঙ্গীকে খুঁজে পেল না। হ্যাঁ, আশা করছি এতদিনে বোধহয় জেনেই গেছেন যে মিলনান্তক গল্প না – পরিচালক গল্পটা ঠিক পোক্ত হাতে টানতে পারেন নি। তাই সে পথে না গিয়ে বলি যে একে বারে ফেলে দিতে গিয়েও ফেলে দেওয়া যাচ্ছে না একটাই কারনে, তার কারনগুলো এইরকম

  • ফটোগ্রাফি অসাধারন বললেও কম বলা হয়। সেই সঙ্গে রঙের ব্যবহার, বেনারসের পটভূমি চোখে পড়ার মত।
  • সবকটা গান খুব সুন্দর মানিয়ে গেছে। একটা তো দিয়েই দিলাম পোস্টের সঙ্গে।
  • চরিত্রগুলো সাদামাটা এবং ভীষন বাস্তব মনে হচ্ছিল কিছু মুহুর্তে।

ভারতীয় সিনেমায় অনেক এক্সপেরিমেন্ট হচ্ছে কমার্শিয়াল সিনেমাতেও। সেটাই একমাত্র আশার আলো। ভিজিল ইডিয়ট প্রচন্ড কষে রিভিউ লিখেছিল, অত খারাপ নয় কারন নেগেটিভ হলেও সিনেমার শেষে কেন জানি না মন ভালো হয়ে যায়।